আস্ক টু আন্স প্লাটফর্মে আপনাকে স্বাগতম, সমস্যার সমাধান খুঁজতে প্রশ্ন করুন।।
0 টি ভোট
76 বার প্রদর্শিত
"পড়াশোনা" বিভাগে করেছেন (525 পয়েন্ট)

বনি ইসরাইল কারা?

আল্লাহ কেন মানুষ সৃষ্টি করেছেন? ব্যাখ্যা করো?

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (525 পয়েন্ট)

উদ্দীপকঃ-

=> সোহাগ একজন ব্যবসায়ী। সে অন্যদের ধোঁকা দেওয়ার জন্য প্রতারণার আশ্রয় নেয়। ভালো দ্রব্যের সাথে খারাপ দ্রব্য মিশিয়ে ক্রেতাদের নিকট বিক্রি করে। নিজের প্রয়োজনে সে প্রায়ই মিথ্যা কথা বলে। মুখে একরকম বলে কিন্তু অন্তরে অন্যরকম বিশ্বাস পোষণ করে। এ ব্যাপারটি ইমাম সাহেবের নজরে আসলে তিনি নিচের আয়াতটি তেলাওয়াত করেন-

امَنَّا بِاللَّهِ وَبِالْيَوْمِ الْآخِرِ وَمَا النَّاسِ مَن يَقُولُ وَمِنَ هُمْ بِمُؤْمِنِينَ.


ক. বনি ইসরাইল কারা?

খ. আল্লাহ কেন মানুষ সৃষ্টি করেছেন? ব্যাখ্যা করো।

গ. সোহাগের কাজকর্মে কাদের বৈশিষ্ট্য ফুটে উঠেছে? ব্যাখ্যা করো।

ঘ. সোহাগের পরিণতি ইমাম সাহেবের তিলাওয়াতকৃত আয়াতের আলোকে বিশ্লেষণ করো।


 প্রশ্নের উত্তরঃ-


ক) হযরত ইয়াকুব (আ.) এর বংশধরদের বনি ইসরাইল বলা হয়।


খ) আল্লাহর ইবাদতের জন্য মানবজাতিকে সৃষ্টি করা হয়েছে।

আল্লাহ মানুষকে সৃষ্টির সেরা জীব হিসেবে সৃষ্টি করেছেন। এজন্য আল্লাহ মানুষের প্রতি বিশেষ দায়িত্ব ও কর্তব্য পালনের নির্দেশ দিয়েছেন। আল্লাহর নির্দেশ পালনের মাধ্যমে মানুষ এ পৃথিবীতে সুষ্ঠু ও সুশৃঙ্খল হিসেবে গড়ে ওঠবে। তাছাড়া মানুষ সব কাজের জবাবদিহি করবে আল্লাহর কাছে। এসব উদ্দেশ্যেই আল্লাহ মানুষ সৃষ্টি করেছেন।


গ) সোহাগের কাজকর্মে মুনাফিকদের বৈশিষ্ট্য ফুটে ওঠেছে।

মুনাফিক আরবি শব্দ। এর অর্থ ভণ্ড, প্রতারক, দ্বিমুখী নীতি বিশিষ্ট প্রভৃতি। অর্থাৎ যাদের অন্তরে নিফাক তথা ভণ্ডামি, প্রতারণা, ধোঁকাবাজি প্রভৃতি বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান তারাই মুনাফিক। মুনাফিকরা লোক দেখানোর জন্য বাহ্যিকভাবে ইমানদারসুলভ আচরণ করে। প্রতৃকপক্ষে তারা অন্তরের দিক দিয়ে অবাধ্য, মিথ্যাবাদী। তারা গোপনে নানা অপরাধমূলক কাজ করে বেড়ায়। মহান আল্লাহ সুরা বাকারার ২য় রুকুর আয়াতসমূহে মুনাফিকদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের স্বরূপ উন্মোচন করেছেন, যা ব্যবসায়ী সোহাগের চরিত্রেও লক্ষণীয়।সোহাগ অন্যদের ধোঁকা দেওয়ার জন্য প্রতারণার আশ্রয় নেয়। ভালো দ্রব্যের সাথে খারাপ দ্রব্য মিশিয়ে ক্রেতাদের নিকট বিক্রি করে। নিজের প্রয়োজনে সে প্রায়ই মিথ্যা কথা বলে। মুখে এরকম বলে কিন্তু অন্তরে অন্যরকম বিশ্বাস' পোষণ করে। অর্থাৎ সে দ্বিমুখী চরিত্রের লোক। এটি মুনাফিকের বৈশিষ্ট্য। সুরা আল বাকারা মুনাফিকদের এরূপ দ্বিমুখী আচরণের কথা বলা হয়েছে। তারা আল্লাহ ও ইমানদারদের ধোঁকা দেওয়ার জন্য মুখে ইমানের কথা বলে, প্রকৃতপক্ষে তার ইমানদার নয়। আবার হাদিসে মুনাফিকের বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে বলা হয়েছে, তারা কথা বললে মিথ্যা কথা বলে। জনাব সোহাগের এরূপ প্রতারণা ও মিথ্যা কথা মুনাফিকির আলামত। সুতরাং কুরআনের আলোকে ব্যবসায়ী সোহাগ একজন মুনাফিক।


ঘ) উদ্দীপকের ইমাম সাহেবের তিলাওয়াতকৃত আয়াতটির মাধ্যমে মুনাফিকদের পরিচয় ফুটে ওঠে যাদের পরিণতি অত্যন্ত ভয়াবহ। মুনাফিকরা পথভ্রষ্ট ও শঠতাপূর্ণ জীবনযাপন করে। এর ফলে তারা আল্লাহর অনুগ্রহ ও রহমত থেকে বঞ্চিত হয় এবং চিরস্থায়ী ক্ষতিই তাদের প্রাপ্য। তারা পৃথিবীতে যেমন ক্ষতির সম্মুখীন হয়, তেমনি পরকালের জীবনেও মহাশাস্তি ভোগ করে। অর্থাৎ তারা চিরস্থায়ী ধ্বংসের মুখে পতিত হয় এবং এর থেকে তাদের কোনো মুক্তি নেই। ইমাম সাহেব এর ইঙ্গিত করেন।উদ্দীপকের সোহাগের মধ্যে ধোঁকা দেওয়া, মিথ্যা বলার মত বৈশিষ্ট্য প্রকাশ পেয়েছে। সুতরাং তাকে মুনাফিক বলা যায়। সুরা আল বাকারার ২০ নং আয়াতে আল্লাহ তায়ালা মুনাফিকদের কর্মতৎপরতা ও দুরবস্থার বাস্তব চিত্র উপস্থাপন করেছেন। এ আয়াতের শিক্ষা এরূপ যে, মুনাফিকরা চরম হতভাগ্য। মুমিনদের সাথে থেকে তাদের মতো বাহ্যিক আচণ করেও তারা হেদায়েতের পথে চলার সৌভাগ্য থেকে বঞ্চিত হয়। পৃথিবীতে তাদের জীবন যেমন অসম্মান ও অবিশ্বাসে ভরে থাকে, পরকালেও তারা কল্পনাতীত যন্ত্রণা ও আজাবে নিমজ্জিত থাকবে। বস্তুত তারা চিরস্থায়ী ধ্বংস ও ক্ষতিতে পতিত হবে। সুতরাং দেখা যাচ্ছে, মুনাফিকের জীবন বেছে নেওয়ায় সোহাগ দুর্ভাগ্যের শিকার হবেন। মিথ্যা ও শঠতার পথ অবলম্বন করায় আল্লাহর অনুগ্রহ থেকে বঞ্চিত হবে এবং কঠিন আজাবের সম্মুখীন হবে।

উপরের আলোচনা থেকে বলা যায়, মুনাফিকদের শাস্তি কঠোর ও যন্ত্রণায়ক। তাই সোহাগের উচিত পরিপূর্ণভাবে ইমান আনা এবং আল্লাহর বিধান অনুসারে জীবনযাপন করা।


উদ্দীপকঃ-

=> হামীম ও তামীম দ্বাদশ শ্রেণির ছাত্র। তারা শ্রেণিকক্ষে বসে কুরআন মজিদ তিলাওয়াতের গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে আলোচনা করছিল। এমতাবস্থায় শিক্ষক শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করলেন। হামীমের প্রশ্নের জবাবে তিনি বললেন, প্রতিটি মানুষের কুরআন শিক্ষা করা আবশ্যক। কেননা কুরআন তিলাওয়াতের ফজিলত অত্যধিক। তাছাড়া কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে মানব হৃদয় কলুষমুক্ত হয়। মানবাত্মা পুতপবিত্র হয়ে ওঠে।


 প্রশ্ন-

ক. কুরআন শব্দের অর্থ কি? আয়াতটি ব্যাখ্যা করো- ذلِكَ الْكِتَابُ لَا رَيْبَ فِيْهِ

গ. শিক্ষার্থীদের মাঝে কুরআন তিলাওয়াতের ব্যাপক-প্রচলন ঘটাতে শিক্ষকের বক্তব্য কীরূপ ভূমিকা রাখতে পারে? ব্যাখ্যা করো।

ঘ. কুরআন তিলাওয়াত মানব হৃদয়কে কলুষমুক্ত করে- তোমার মতের সপক্ষে যুক্তি দাও।


প্রশ্নের উত্তরঃ-


ক) কুরআন শব্দের অর্থ পঠিত।এটি সেই কিতাব, যাতে কোনো সন্দেহ নেই।এ আয়াতটি দ্বারা পবিত্র কুরআন মজিদের নির্ভুলতাকে নির্দেশ করা হয়েছে।আল কুরআন সন্দেহমুক্ত কিতাব। সন্দেহের উদ্রেক হতে পারে এমন কোনো বিষয় এতে নেই। মহাগ্রন্থ আল কুরআনের প্রথম ও প্রধান অলৌকিকতা হলো এ গ্রন্থ নিজেই তার সংশয়, সন্দেহ ও ত্রুটিহীনতার ঘোষণা দিয়েছে।


ঘ) কুরআন তিলাওয়াত মানব হৃদয়কে কলুষমুক্ত করে- শিক্ষকের এ উক্তিটির সাথে আমি একমত।

মহাগ্রন্থ আল কুরআন মানুষের জীবনযাপনের সংবিধান। এর মধ্যে মানুষের সফলতার দিকনির্দেশনা এবং ব্যর্থতার কারণ নিহিত আছে। নফল ইবাদতের মধ্যে কুরআন তিলাওয়াত করা সর্বোত্তম ইবাদত। যা মানব হৃদয়কে কলুষমুক্ত রাখে। শ্রেণিশিক্ষক এ বিষয়টি বর্ণনা করেছেন। উদ্দীপকে শিক্ষক কুরআন মজিদ তিলাওয়াতের গুরুত্ব ও ফজিলত সম্পর্কে হামীমের প্রশ্নের জবাবে বলেন, কুরআন তিলাওয়াতের ফজিলত অত্যধিক। কুরআন তিলাওয়াতের মাধ্যমে মানব হৃদয় কালিমা মুক্ত হয়। কেননা রাসুল (স.) বলেন- নিশ্চয়ই এ অন্তরেও মরিচা পড়ে, যেমন পানি পড়লে লোহায় মরিচা পড়ে। বলা হলো, হে আল্লাহর রাসুল (স) এ মরিচা দূর করার উপায় কী? তিনি বললেন, বেশি বেশি মৃত্যুকে স্মরণ করা এবং কুরআন তিলাওয়াত করা (মিশকাত)। সর্বোপরি পবিত্র কুরআন তিলাওয়াত পারলৌকিক মুক্তির পথ সুগম করে। হাদিসে এসেছে, 'যে ব্যক্তি কুরআন তিলাওয়াত করেছে এবং তা মুখস্থ করে আর তার বর্ণিত হালালকে হালাল এবং হারামকে হারাম জেনেছে, আল্লাহ তাকে জান্নাতে প্রবেশ করাবেন এবং তার পরিবারের এমন দশ ব্যক্তির জন্য তার সুপারিশ কবুল করবেন, যাদের প্রত্যেকের জন্যই জাহান্নাম নির্ধারিত হয়েছিল।' (তিরমিযি)

সুতরাং উপরের আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে বলা যায় শিক্ষকের উক্তিটি সঠিক।

Ask2Ans এ আপনাকে সুস্বাগতম, এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং Ask2An অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পাবেন। এখান থেকে যেমন আপনি জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন তেমনিই এটি ব্যবহার করে আপনার জ্ঞান দিয়ে অপরকে সহায়তা করতে পারবেন। জ্ঞানার্জনের অন্যতম বাংলা প্লাটফর্ম হলো Ask2Ans, আমাদের সাথে থাকুন জ্ঞানঅর্জন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 55 বার প্রদর্শিত
10 ফেব্রুয়ারি "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 64 বার প্রদর্শিত
18 জানুয়ারি "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 97 বার প্রদর্শিত
12 ডিসেম্বর 2023 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 45 বার প্রদর্শিত
11 ডিসেম্বর 2023 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 76 বার প্রদর্শিত
...