আস্ক টু আন্স প্লাটফর্মে আপনাকে স্বাগতম, সমস্যার সমাধান খুঁজতে প্রশ্ন করুন।।
0 টি ভোট
59 বার প্রদর্শিত
"পড়াশোনা" বিভাগে করেছেন (525 পয়েন্ট)

NASW এরপূর্ণরূপ কী?

বিভারিজ রিপোর্টের পঞ্চদৈত্যগুলো লিখ?

1 উত্তর

0 টি ভোট
করেছেন (525 পয়েন্ট)

image​​​উদ্দীপকঃ-

=> বর্তমান বাংলাদেশে সরকার হতদরিদ্র জনগোষ্ঠীর অর্থনৈতিক উন্নয়ন ও সামাজিক নিরাপত্তার জন্য "একটি বাড়ি, একটি খামার", "ঘরে ফেরা" "ভিজিডি", "ভিজিএফ", "বয়স্ক ভাতা”, মুক্তিযোদ্ধা ভাতা ইত্যাদির প্রচলন করেন। যা মূলত পেশাগত সমাজকর্মের সূতিকাগার ব্রিটেনেও একই রকম পদ্ধতি ব্যবহার করে সামাজিক সমস্যার সমাধান করা হয়ে থাকে।

প্রশ্ন-

ক. NASW এরপূর্ণরূপ কী?

খ. বিভারিজ রিপোর্টের পঞ্চদৈত্যগুলো লিখ?

গ. ইংল্যান্ডের দরিদ্র নির্মূল করতে ব্রিটিশ সরকারের ১৮৩৪ সালের দরিদ্র আইনের ইতিবাচক দিকগুলো সম্পর্কে লিখ।

ঘ. উদ্দীপকে উল্লিখিত ইংল্যান্ডের দরিদ্র নির্মূলের ক্ষেত্রে দানসংগঠন সমিতির ভূমিকা কেমন ছিল?-তোমার অভিমত প্রকাশ কর।

প্রশ্নের উত্তরঃ-

ক) NASW-এর পূর্ণরূপ হলো National Association of Social Workers.

খ) পঞ্চদৈত্য বলতে ১৯৪২ সালে পেশকৃত বিভারিজ রিপোর্টে উল্লিখিত পাঁচটি সমস্যা- অভাব, রোগ, অজ্ঞতা, মলিনতা ও অলসতাকে বোঝায়।

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধজনিত আর্থ-সামাজিক অস্থিরতা ও অনিশ্চয়তা মোকাবিলার লক্ষ্যে বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ স্যার উইলিয়াম বিভারিজ একটি সামাজিক নিরাপত্তা রিপোর্ট পেশ করেন। এই রিপোর্টে তিনি উপযুক্ত পাঁচটি সমস্যা চিহ্নিত করেন। তার মতে, তৎকালীন দারিদ্র্যপীড়িত ইংল্যান্ডের সমাজজীবনকে এই পাঁচটি সমস্যা অক্টোপাসের মতো আঁকড়ে রেখেছিল। এই সমস্যাগুলোই পঞ্চদৈত্য নামে পরিচিতি পায়।

গ) ইংল্যান্ডের দরিদ্র নির্মূল করতে ব্রিটিশ সরকারের ১৮৩৪ সালের দরিদ্র আইন ইতিবাচক ভূমিকা রেখেছিল।

১৬০১ সালের এলিজাবেথীয় দরিদ্র আইন ইংল্যান্ডের সমাজজীবনে বিভিন্ন ধরনের বিরূপ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি করে। ফলে অসহায় দরিদ্রদের কল্যাণ ও সাহায্যার্থীদের জন্য পরিচালিত ত্রাণ ব্যবস্থা সংস্কারের উদ্দেশ্যে ১৮৩৪ সালে দরিদ্র আইন সংস্কার প্রণীত হয়। এ আইন প্রণয়নের তিন বছরের মধ্যে সরকারের দরিদ্র সাহায্য ব্যয় এক তৃতীয়াংশ কমে যায়। এ আইনে সক্ষম দরিদ্রদের নিজেদের পর তাদের পরিবারের চাহিদা পূরণকল্পে আত্মনির্ভরশীল হওয়ার জন্য কর্মশিবিরে কাজ করতে বাধ্য করা হয়, যা প্রাথমিকভাবে সমাজকর্ম পেশার ভিত্তি হিসেবে কাজ করে।সমাজকল্যাণ সংস্থার কার্যকারিতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে 'Royal Poor Law Commission' কে 'Poor Law Board' এ রূপান্তর করা হয়। পরবর্তীতে এ আইনের আলোকে General Board of Health গঠন করে বস্তি এলাকার বাসস্থান উন্নয়ন, পানি সরবরাহ, পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, মহামারী ও সংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধের জন্য কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়। এছাড়া দারিদ্র্যের কারণ উদঘাটনসহ বেশ কয়েকটি ক্ষেত্রে বাস্তবধর্মী পদক্ষেপ গ্রহণ তৎকালীন দরিদ্রদের ব্যাপকভাবে সাহায্য করে।

ঘ) উদ্দীপকে উল্লিখিত ইংল্যান্ডের দরিদ্র নির্মূলের ক্ষেত্রে দান সংগঠন সমিতির ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ছিল।

ঊনবিংশ শতাব্দীর দ্বিতীয়ার্ধে ইংল্যান্ডে সমাজসেবার ক্ষেত্রে দান সংগঠন সমিতির উদ্ভব ঘটে। মূলত শিল্প বিপ্লব পূর্ববর্তী সময়ে যে সমাজকল্যাণ বা সমাজসেবামূলক প্রচেষ্টা চালানো হতো তা ছিল বিচ্ছিন্ন ও অসংগঠিত। এসব সমাজকল্যাণ বা সমাজসেবামূলক কার্যক্রমকে সুষ্ঠুভারেব পরিচালনার লক্ষ্যে সর্বপ্রথম ১৮৬৯ সালে ইংল্যান্ডের লন্ডনে দান সংগঠন সমিতি প্রতিষ্ঠিত হয়।ইংল্যান্ডের সমাজকর্ম বিকাশের ইতিহাসে দানসংগঠন সমিতি দারিদ্র দূরীকরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। এই সমিতির সঙ্গে অনেক | বিখ্যাত ব্যক্তিবর্গ জড়িত ছিলেন। এদের মধ্যে মনীষী থমাস চার্লমার্স উল্লেখযোগ্য। তিনি দারিদ্র্যের সামাজিক ব্যাখ্যার উপর একটি তত্ত্ব উদ্ভাবন করেন। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, "ব্যক্তি নিজেই তার দরিদ্রতার জন্য দায়ী, সরকারি ত্রাণ গ্রহণ ব্যক্তির আত্মমর্যাদাবোধ ধ্বংস করে এবং তাকে সাহায্যপ্রাপ্তির উপর নির্ভরশীল করে তোলে"। মূলত এ তত্ত্বের উপর ভিত্তি করেই COS এর নীতি গড়ে উঠেছিল।দান সংগঠন সমিতির লক্ষ্যার্জন ও নীতিমালা বাস্তবায়নের জন্য একটি অনুসন্ধান বিভাগ খোলা হয়। প্রশাসনিক কার্যের সুবিধার জন্য COS জার্মানির "এলবার ফিল্ড" ব্যবস্থার সাহায্যে লন্ডন শহরকে কয়েকটি জেলায় বিভক্ত করে। লন্ডন দান সংগঠন সমিতির অনুকরণে ইংল্যান্ড ও স্কটল্যান্ডের বড় বড় শহরে COS গঠন করা হয়। দান সংগঠন সমিতি যে সব ক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্য লাভ করে তাহলো-সরকারি পর্যায়ে ত্রাণ কার্যক্রমের ব্যয় হ্রাস; সরকারি বেসরকারি সাহায্যের মধ্যে সমন্বয়সাধন; সাহায্য গ্রহণের ক্ষেত্রে পুনরাবৃত্তি রোধ; ভুয়া সাহায্য সংগঠনের উচ্ছেদ; দরিদ্রদের পুনর্বাসন সম্পর্কিত ধারণা সুদৃঢ় করা এবং সমাজকর্ম ও সমষ্টি সংগঠনের ভিত্তি রচনা প্রভৃতি।

Ask2Ans এ আপনাকে সুস্বাগতম, এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং Ask2An অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পাবেন। এখান থেকে যেমন আপনি জ্ঞান অর্জন করতে পারবেন তেমনিই এটি ব্যবহার করে আপনার জ্ঞান দিয়ে অপরকে সহায়তা করতে পারবেন। জ্ঞানার্জনের অন্যতম বাংলা প্লাটফর্ম হলো Ask2Ans, আমাদের সাথে থাকুন জ্ঞানঅর্জন করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি ভোট
1 উত্তর 219 বার প্রদর্শিত
0 টি ভোট
1 উত্তর 45 বার প্রদর্শিত
27 ফেব্রুয়ারি "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 57 বার প্রদর্শিত
15 ফেব্রুয়ারি "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 32 বার প্রদর্শিত
08 ডিসেম্বর 2023 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Admin (525 পয়েন্ট)
0 টি ভোট
1 উত্তর 52 বার প্রদর্শিত
04 ডিসেম্বর 2023 "পড়াশোনা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Hasib (569 পয়েন্ট)
...